শনিবার , এপ্রিল ১৩ ২০২৪
শিরোনাম
Home / চট্টগ্রাম / কেএসআরএম’র আর্থিক সহযোগিতায় করোনায় কর্মহীন হকারদের পাশে দাঁড়ালো সিএমপি দক্ষিণ

কেএসআরএম’র আর্থিক সহযোগিতায় করোনায় কর্মহীন হকারদের পাশে দাঁড়ালো সিএমপি দক্ষিণ

সবুজ অরণ্য। চট্টবাংলা প্রতিনিধি-ঃ
সারাদেশে গাণিতিকহারে বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। বাড়ছে লাশের সারি।
একের পর এক জেলা-উপজেলা আসছে লকডাউনের আওতায়। দিনে দিনে কর্মহীন হয়ে পড়ছে নগরীর বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষগুলো।
ভাল নেই রোজ সকালে পত্রিকা হাতে নিয়ে পাঠকের দৌঁড়গোড়ায় খবর পৌঁছে দেয়া সংবাদপত্র বিপনণকর্মীরাও (হকার)। করোনার থাবায় বন্ধ হয়ে গেছে জাতীয় থেকে স্থানীয় বেশ কিছু পত্রিকা। বন্ধ তাঁদের আয়ের পথও। তাঁদেরই পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ গ্রহণ করে। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ দক্ষিণ বিভাগ।
আর্থিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে সিএমপি দক্ষিণ বিভাগকে নির্ভার করে দেশের শীর্ষ স্থানীয় ইস্পাত নির্মাণকারী শিল্পগ্রুপ কেএসআরএম। এসহযোগিতার আওতায় প্রাথমিকভাবে চিটাগাং সংবাদপত্র হকার্স বহুমুখী সমবায় সমিতি লিঃ এর তালিকাভূক্ত ৩৫০টি অতি অসচ্ছল সংবাদপত্র বিপনণকর্মীর (হকার) পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়। তবে ধারাবাহিকভাবে সকল হকারকে এর আওতায় নিয়ে আসা হবে বলেও জানায় সিএমপি দক্ষিণ বিভাগ।
আজ শনিবার (১৮ এপ্রিল) বিকেলে নগরীর লাভ লেইন স্মরণিকা কমিউনিটি সেন্টারে সিএমপি দক্ষিণ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মেহেদী হাসান হকার সমিতি নেতৃবৃন্দের কাছে কেএসআরএম এর প্রদানকৃত খাদ্য সামগ্রী আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন।
এসময় উপ-পুলিশ কমিশনার মেহেদী হাসান বলেন, মহামারী করোনার প্রভাবে বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুষ আর্থিক সংকটে পড়েছে চরমভাবে। আমরা চাই তাদের পাশে দাঁড়াতে। সহযোগিতার হাত বাড়াতে চাই কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের প্রতি। এরই অংশ হিসেবে আমরা জানতে পেরেছি চট্টগ্রামে প্রায় ১ হাজার পত্রিকা হকার কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এরমধ্যে ৩৫০ পরিবার দুর্বিসহ জীবনযাপন করছেন। তাই আমরা তাদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ গ্রহণ করি। আমাদের আহ্বানে সাড়া দিয়ে আর্থিক সহযোগিতা করে ইস্পাত নির্মাণকারী শিল্পগ্রুপ কেএসআরএম।
এবিষয়ে জানতে চাইলে কেএসআরএম’র মিডিয়া অ্যাডভাইজার মিজানুল ইসলাম বলেন,
” আমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ হিসেবে কেএসআরএম হকারদের পাশে দাঁড়িয়েছে। এটা আমাদের ধারাবাহিক কাজেরই অংশ। শুধু তাই নয় বৈশ্বিক মহামারি করোনার প্রভাব শুরু হওয়ার পর থেকে কেএসআরএম বিভিন্ন শ্রেণী ও পেশার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। আজ এসব পণ্য সামগ্রীও দেওয়া হয়েছে কেএসআরএম’র উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহরিয়ার জাহানের আন্তরিক সহযোগিতায়। যা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে”।
এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সিএমপি দক্ষিণ বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার আবদুর রউফ। চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব’র সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী ফরিদ। চিটাগাং সংবাদপত্র হকার্স বহুমুখী সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি মো. ইউসুফ আলী ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম লিটন প্রমুখ।
প্রসঙ্গত,সারাদেশে মহামারি করোনার বিস্তাররোধে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, যান চলাচল বন্ধসহ বেশকিছু নির্দেশনা দিয়ে গত ২৫ মার্চ সন্ধ্যা থেকে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করে সরকার। প্রথম ধাপে ৫এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করলেও, তিন ধাপে এছুটির মেয়াদ বাড়ে আগামী ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত।
দেশের এমন ক্লান্তিকালেও শুরু থেকে এগিয়ে এসেছে কেএসআরএম। করোনা চিকিৎসায় নিয়োজিত ডাক্তারদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রদান করা হয় পিপিই। সাংবাদিকদের পেশাগত দায়িত্ব পালনে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সুরক্ষা সামগ্রী নিয়ে তাঁদের পাশেও দাড়িয়েছে ঢাল হয়ে।
এক প্রশ্নের জবাবে, কেএসআরএম’র মিডিয়া অ্যাডভাইজার মিজানুল ইসলাম বলেন, “শুধু এখানেই শেষ নয়, আমাদের সামাজিক দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত রাষ্ট্র এবং সরকারের পাশাপাশি দেশ ও দেশের বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের পাশে থাকবে কেএসআরএম পরিবার”।
                                                                                             

এটি পড়ে দেখতে পারেন

ফটিকছড়িতে ছাদেক নগর দরবার শরীফের ৪২তম পবিত্র ওরশ শরীফ সম্পন্ন

  মিলন বৈদ্য শুভ (প্রতিনিধি) ফটিকছড়ি থানার অন্তর্গত সমিতির হাট ইউনিয়নস্থ ছাদেক নগর দরবার শরীফের …