শনিবার , এপ্রিল ১৩ ২০২৪
শিরোনাম
Home / চট্টগ্রাম / বোয়ালখালীতে স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের মানববন্ধন

বোয়ালখালীতে স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের মানববন্ধন

 

চট্ট বাংলা ডেক্স

 

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে গত ২৯ মার্চ শুক্রবার বিকাল ৩ টায় বোয়ালখালী উপজেলা চত্বরে বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম সেলিমের দুই ছেলের বিরুদ্ধে মিথ্যা চাঁদাবাজি মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়া শিক্ষার্থীদের সংগঠন বোয়ালখালী স্টুডেন্টস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন মানববন্ধন করেন।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন- সংগঠনের উপদেষ্টা, চট্টগ্রাম জেলা পরিষদের সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন এমরান।  বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আইন উপদেষ্টা, চট্টগ্রাম আইন কলেজের অধ্যক্ষ ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আবু তৈয়ব কিরণ,  সংগঠনটির সাবেক সাধারণ  সম্পাদক- আদনান উদ্দীন হায়দার ,  সাধারণ সম্পাদক –  কফিল উদ্দীন, সহ সভাপতি-সায়েমুল হক,  মিজানুর রহমান সহ আরো অনেকে।

এসময় বক্তারা বলেন – বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এম সেলিমের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য একটি কুচক্রী মহল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া তার ছেলে এস.এম সাকিব হোসেন ইমরু ও  বড় ছেলের নামে চট্টগ্রাম আদালতে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন যে মামলা দায়ের করা হয়েছে মামলাটি অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি করেন।

তারা বলেন, আগামী উপজেলা নির্বাচনে এসএম সেলিমের চেয়ারম্যান প্রার্থীতার অপ্রতিরোধ্য জনপ্রিয়তাই  ঈর্ষান্বিত হয়ে তাকে না পেরে তার ছেলের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মিথ্যা মামলা সাজিয়ে  দায়ের করা হয়েছে। হামলা- মামলা করে কারো জনপ্রিয়তাকে প্রতিরোধ করা যাবে না । এসএম সেলিম এক দিনে সৃষ্টি হয়নি। এদেশের স্বাধীনতার মহান মুক্তিযুদ্ধে তিনিও একজন বীর সৈনিক। তার দেশপ্রেম, মানুষের প্রতি তার ভালোবাসা,   মানবিকতা, তার সততা ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড বোয়ালখালির মানুষ জানে। বোয়ালখালীতে অনেক মেধাবী ও ত্যাগী নেতার  জন্ম হয়েছে । এসএম সেলিমের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড পর্যালোচনা করলে  সেই অনেকের মধ্যেই সেলিমও একজন। তার ছোট ছেলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত আর বড় ছেলে একটি বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত একজন মুক্তিযোদ্ধার ছেলে হিসেবে এসএম সেলিম তার ছেলেদের এমন কোন কুশিক্ষা দেননি যা সমাজ কিংবা মানুষের প্রতি কোন প্রভাব বিস্তার করতে পারে।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ, বোয়ালখালী থানাকে উপেক্ষা করে কেন চট্টগ্রাম আদালতে মিথ্যা ও বানোয়াট  মামলা রুজু করা হয়েছে তা সবার কাছে পরিষ্কার।  শাক দিয়ে মাছ ঢাকা যায় না। যারা নিজেদের স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্যে অন্যের কাঁধে বন্দুক রেখে মাছ শিকারের চেষ্টা করছেন তা কখনো ফলপ্রসু হবে না। আজ সময়ের ব্যবধানে নীতিহীন মানুষগুলো পথ দেখাচ্ছে অন্ধ মানুষগুলোকে। আমরা এই মানববন্ধন থেকে প্রতিবাদ ও নিন্দা প্রকাশ করছি।

 

এটি পড়ে দেখতে পারেন

বিডি ৫১১ এর উদ্যোগে কৃষকদের মাঝে সার ও কীটনাশক বিতরণ

অভি পাল (প্রতিনিধি) মধ্য ও দক্ষিণ বাংলাদেশ শিশু উন্নয়ন প্রকল্প বাণীগ্রাম, বিডি-৫১১ এর আয়োজনে ও …